ব্যাক্টেরিয়া সমন্ধে তথ্য | Bacteria Information Free PDF

ব্যাকটেরিয়া (Bacteria ) সূচনা (Introduction) : ব্যাকটেরিয়া জীবজগতের অন্তর্গত এক ক্ষুদ্রতম আণুবীক্ষণিক প্রোক্যারিওটিক জীবাণু। ব্যাকটেরিয়া পৃথিবীর সর্বত্র বিরাজমান। ব্যাকটেরিয়া কোশে সুগঠিত নিউক্লিয়াস, পর্দাবেষ্টিত কোশ-অঙ্গাণু না থাকায় এবং রাইবোজোম 70S প্রকৃতির হওয়ায় ব্যাকটেরিয়াকে প্রোক্যারিওটিক বলা হয়। ব্যাকটেরিয়ার দেহে কোশপ্রাচীর থাকায়, ভিটামিন সংশ্লেষে সক্ষম হওয়ায় এবং কিছু ব্যাকটেরিয়ার দেহে ক্লোরোফিল থাকায় ব্যাকটেরিয়াকে উদ্ভিদ বলা হয়। 1976 খ্রিস্টাব্দে নেদারল্যান্ডের অধিবাসী এ.… Read More »

ব্যাক্টেরিয়া সমন্ধে তথ্য | Bacteria Information Free PDF
Information OF Bacteria Free PDF

ব্যাকটেরিয়া (Bacteria )

সূচনা (Introduction) : ব্যাকটেরিয়া জীবজগতের অন্তর্গত এক ক্ষুদ্রতম আণুবীক্ষণিক প্রোক্যারিওটিক জীবাণু। ব্যাকটেরিয়া পৃথিবীর সর্বত্র বিরাজমান। ব্যাকটেরিয়া কোশে সুগঠিত নিউক্লিয়াস, পর্দাবেষ্টিত কোশ-অঙ্গাণু না থাকায় এবং রাইবোজোম 70S প্রকৃতির হওয়ায় ব্যাকটেরিয়াকে প্রোক্যারিওটিক বলা হয়। ব্যাকটেরিয়ার দেহে কোশপ্রাচীর থাকায়, ভিটামিন সংশ্লেষে সক্ষম হওয়ায় এবং কিছু ব্যাকটেরিয়ার দেহে ক্লোরোফিল থাকায় ব্যাকটেরিয়াকে উদ্ভিদ বলা হয়।

1976 খ্রিস্টাব্দে নেদারল্যান্ডের অধিবাসী এ. ডি. লিউয়েনহক (Anton Van Leeuwenhoek), এক ক্ষুদ্র দণ্ডাকার প্রাণীর বিবরণ দেন। 1773 খ্রিস্টাব্দে ড্যানিশ বিজ্ঞানী মূলার (Otto Frederick Muller) ওই দণ্ডাকার প্রাণীকে ব্যাসিলি (Bacilli) নামে অভিহিত করেন। 1828 খ্রিস্টাব্দে বিজ্ঞানী ইরেনবার্গ (Ehrenberg) প্রথম এদের ব্যাকটেরিয়া নামকরণ করেন ।

ব্যাকটেরিয়ার বাসস্থান (Occurrence of Bacteria)

ব্যাকটেরিয়া জলে, স্থলে, অন্তরীক্ষে সর্বত্রই বিচরণ করে। সমুদ্র ও মৃত্তিকার গভীরতম স্তরে এবং উচ্চতম পর্বত শিখরেও এদের বিচরণ। এরা যেমন- 170°C-এর নিম্ন তাপমাত্রায় বেঁচে থাকে তেমনি 75°–80°C-এর উচ্চ তাপমাত্রায়ও বেঁচে থাকে। অক্সিজেনবিহীন পরিবেশেও এরা বেঁচে থাকতে পারে। কতকগুলি ব্যাকটেরিয়ার বাসস্থান এখানে উল্লেখ করা হলঃ

[1 ] বায়ুতে অবস্থান করে : ক্লসট্রিডিয়াম (Clostridium)-এর কয়েকটি প্রজাতি, ব্যাসিলাস সাবটিলিস (Bacillus subtilis), সারসিনা লিউটিয়া (Sarcina luten) ইত্যাদি।

[2] জলে অবস্থান করে : ভিব্রিও কোমা (Vibrio coma), সালমোনেল্লা টাইফি (Salmonella typhi), ক্লসট্রিডিয়াম টিটেনি (Clostridium tetani) ইত্যাদি।

[3] জলে অবস্থান করে : অ্যাজোটোব্যাক্টার (Azotobacter), নাইট্রোব্যাকটার (Nitrobacter), নাইট্রোসোমোনাস (Nitrosomonas) ইত্যাদি।

[4] শিম্বি গোত্রীয় উদ্ভিদের অর্বুদে অবস্থান করে : রাইজোবিয়াম (Rhizobum) |

[5] দুধে অবস্থান করে : ল্যাকটোব্যাসিলাস (Lactobacillus), স্ট্রেপটোকক্কাস ল্যাকটিস (Streptococcus lactis), এসচেরিচিয়া কোলাই (Escherichia colt)।

[6] মাছ, মাংস ও ডিমে অবস্থান করে : সিউডোমোনাস (Pseudomonas) ও প্রোটিয়াস (Proteus)-এর বিভিন্ন প্রজাতি।

[7]  উদ্ভিদদেহে রোগ সৃষ্টিকারী : জ্যান্থোমোনাস ওরাইজি (Xanthomonas oryzae), জ্যান্থোমোনাস সাইটি (Xanthomonas citri) |

[8] প্রাণীদেহে রোগ সৃষ্টিকারী : ভিব্রিও কলেরি (Vibrio cholerae), সালমোনেলা টাইফোসা (Salmonella typhosa), মাইকোব্যাকটেরিয়াম টিউবারকিউলোসিস (Mycobacterium tuberculosis)।